Tinpahar
No Comments 11 Views

ঝুরো কবিতা

শরীর থেকে ফুরিয়ে যাচ্ছে
মাঠ
ঘর
উঠোন
আত্মীয়
অভাবের নার্স
অপারেশন টেবিলে বলছেন
কাগজে আত্মীয়ার সই চাই
ছোটোকাঁটার গায়ে বড় কাঁটা  ঘুমালে
তোমায় অপূর্ব বারোটায় মরতে দেখি
যাদের প্রতিদিন অজস্র বারোটা বাজছে
আমি তাদেরই একজন যে ঘড়ির মিস্ত্রি খুন করে বেড়ায়
তোমার ওড়াউড়ি খুঁজতে খুঁজতে
শকুনের কাছাকাছি এলাম
মাঠে শরীর ভেঙে পড়ার আগে
শরীর প্রমাণ ঘাস নিরাপদ রাখো হে
আমার শবের ভেতর চুরি গেছে যার ডানা
বাকি দেহ পচে ঘাস হলে তোমার ফড়িং পাবে বাকি ওড়াউড়ি
শেষ দেশলাইকাঠি  পরম যত্নের কাঠি
প্রতিটি যত্নের কেন্দ্রে আশ্চর্য অভাব দাঁড়িয়ে
আর আমি ভাবি আমার বান্ধবী
সর্বোচ্চ যন্ত্রণার আয়ু তোমার নাম উচ্চারণের চেয়ে অনেক ছোটো গো
দরজার আগে জানলা চেনার অভ্যাস করছি
 দেখি পরিবার নেই অমর কাঠবেড়ালি একা
  দরজার পাশে তোমার বসন্তের স্টেশন যদিও
ও ট্রেনে আমার কোনো ঘর নেই মানুষ নেই
 
About the author:
Has 212 Articles

LEAVE YOUR COMMENT

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to Top